প্রাথমিক শিক্ষকদের তৃতীয় ধাপের জাতীয়করণের গেজেট প্রকাশ

তারা জানান,জাতীয়করণের তৃতীয় ধাপে বিভিন্ন জেলার ৫৭০টি প্রাথমিক বিদ্যালয় শিক্ষকরা রয়েছেন। এর সঙ্গে যুক্ত হয়েছে ইউএনডিপির আওতাভূক্ত তিন পার্বত্য জেলার ৩১০ বিদ্যালয়ের শিক্ষকরা। গত ২৯ এপ্রিল তালিকাভুক্ত শিক্ষকদের খসড়া গেজেট আকারে প্রকাশ করে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়। এর উপর ভিত্তি করেই গেজেট চূড়ান্ত করা হয়েছে।

প্রাইমারি স্কুল শিক্ষকদের জাতীয়করণে তৃতীয় ধাপে তালিকাভুক্তির গেজেটের কাজ শেষ হয়েছে। অক্টোবরের মধ্যে তা তা প্রকাশ করা হবে। বৃহস্পতিবার প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা এমন খবর জানিয়েছেন।

এ বিষয়ে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা অধিদফতরের অতিরিক্ত সচিব ড. এ এফ এম মনজুর কাদির বলেন, তৃতীয় ধাপে বিভিন্ন পর্যায়ে ৮৮০টি স্কুল রয়েছে। অর্থ মন্ত্রণালয়ের অনুমোদন না পাওয়ায় চূড়ান্ত তালিকা প্রকাশ সম্ভব হয়নি। তবে সম্প্রতি অর্থ মন্ত্রণালয় অনুমোদন দিয়েছে। এখন অর্থ মন্ত্রণালয়ের চিঠি পেলেই তা প্রকাশ করা হবে। গেজেটভুক্ত শিক্ষকদের ২০১৪ সালের জানুয়ারি থেকে বেতন-ভাতা দেয়া হবে বলে জানান তিনি।

জানা যায়, ২০১৩ সালে ২৬ হাজার ১৯৩টি বিদ্যালয়ের ১ লাখ ৩৮৪৫ শিক্ষকের চাকরি তিন ধাপে জাতীয়করণের সিদ্ধান্ত নেয় সরকার। এর মধ্যে প্রথম ধাপের শিক্ষকদের চাকরি ২০১৩ সালের জানুয়ারি থেকে, দ্বিতীয় ধাপের ২০১৩ সালের জুলাই থেকে এবং তৃতীয় ধাপের শিক্ষকদের চাকরি ২০১৪ সালের জানুয়ারি থেকে জাতীয়করণের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।

প্রথম ধাপের শিক্ষকদের চাকরি যথাসময়ে জাতীয়করণ হলেও দ্বিতীয় ধাপের শিক্ষকদের জাতীয়করণের গেজেট প্রকাশ হয় গত বছর।

প্রথম ধাপে সরকারি হওয়া স্কুলগুলো ছিল বেসরকারি রেজিস্টার্ড প্রাথমিক বিদ্যালয়। দ্বিতীয় ও তৃতীয় ধাপে জাতীয়করণ হওয়া স্কুলগুলো আগে মূলত কমিউনিটি স্কুল, এনজিও, বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান ও ব্যক্তি উদ্যোক্তাদের অধীনে ছিল।

উল্লেখ্য, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ২০১৩ সালের ৯ জানুয়ারি রাজধানীর প্যারেড গ্রাউন্ডে আয়োজিত শিক্ষক মহাসমাবেশে ২৬ হাজার ৪০০ বেসরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় জাতীয়করণের ঘোষণা দেন।

সুত্রঃ- দৈনিক শিক্ষা ডট কম

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *